সালাফী আকিদা ও মানহাজে - Salafi Forum

Salafi Forum হচ্ছে সালাফী ও সালাফদের আকিদা, মানহাজ শিক্ষায় নিবেদিত একটি সমৃদ্ধ অনলাইন কমিউনিটি ফোরাম। জ্ঞানগর্ভ আলোচনায় নিযুক্ত হউন, সালাফী আলেমদের দিকনির্দেশনা অনুসন্ধান করুন। আপনার ইলম প্রসারিত করুন, আপনার ঈমানকে শক্তিশালী করুন এবং সালাফিদের সাথে দ্বীনি সম্পর্ক গড়ে তুলুন। বিশুদ্ধ আকিদা ও মানহাজের জ্ঞান অর্জন করতে, ও সালাফীদের দৃষ্টিভঙ্গি শেয়ার করতে এবং ঐক্য ও ভ্রাতৃত্বের চেতনাকে আলিঙ্গন করতে আজই আমাদের সাথে যোগ দিন।
MD Nasim Ahmed

প্রশ্ন প্রাইজবন্ড কেনা কি হারাম?

MD Nasim Ahmed

Member

LV
3
 
Awards
11
Credit
865
বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক প্রাইজবন্ড কেনা বেচা এবং প্রতি বছর ড্র এর মাধ্যমে এই প্রাইজবন্ডের উপর যে পুরস্কার প্রদান করা হয় সেটা নেওয়া জায়েজ হবে কিনা?
এখানে বলে রাখা ভালো প্রাইজবন্ড কেনা বেচায় লস নেই কেউ ১০০ টাকা দিয়ে কিনলে সেটা যেকোন সময় ১০০ টাকাতেই বিক্রি করা যায় এমনকি পুরস্কারের সাথেও প্রাইজবন্ডের ক্রয় মূল্য ফেরত দেওয়া হয়।
 
Solution
প্রাইজবন্ডের এই বিষয়টি জুয়া ছাড়া আর কিছুই নয়। এটি হারাম, জায়েজ নেই।

অনেকে প্রাইজবন্ডের বিষয়ে কিছু কথা বলেন যে আমি তো প্রাইজবন্ড কিনলাম, এই টাকাটা আমার কাছে থেকে গেল, হয়তো কয়েকজন লটারি করে পুরস্কার পেল। এমন তো নয় যে আমার টাকা অন্য কেউ নিয়ে গেছে।

প্রাইজবন্ডের টাকা একটা নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত তাদের কাছে থাকে এবং এই টাকা তারা ব্যবহার করে থাকে একটা নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত। এই সুবিধা নেওয়ার কারণে এটার জুয়ার সঙ্গে সম্পৃক্ততা রয়েছে।

যদি এটা আমানত হিসেবে থাকত, তারা এটা ব্যবহার করতে পারত না, তাহলে মূলত এখানে জুয়া আসত না। জুয়া এসেছে কারণ, হয়তো তারা এই টাকা কোনো সুদি কারবারে এক মাস, দুই মাস বা তিন মাস ব্যবহার করল। এটা একটা মেয়াদে ড্র করা হয় এবং সেখান থেকে তারা উপকৃত হয়। যদি আমানত হিসেবে থাকত, তারা ব্যবহার না করত এবং এটা শর্তের মধ্যে উল্লেখ...

Habib Bin Tofajjal

If you're in doubt ask الله.

Forum Staff
Moderator
Generous
ilm Seeker
Uploader
Exposer
Q&A Master
Salafi User
LV
17
 
Awards
33
Credit
16,604
প্রাইজবন্ডের এই বিষয়টি জুয়া ছাড়া আর কিছুই নয়। এটি হারাম, জায়েজ নেই।

অনেকে প্রাইজবন্ডের বিষয়ে কিছু কথা বলেন যে আমি তো প্রাইজবন্ড কিনলাম, এই টাকাটা আমার কাছে থেকে গেল, হয়তো কয়েকজন লটারি করে পুরস্কার পেল। এমন তো নয় যে আমার টাকা অন্য কেউ নিয়ে গেছে।

প্রাইজবন্ডের টাকা একটা নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত তাদের কাছে থাকে এবং এই টাকা তারা ব্যবহার করে থাকে একটা নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত। এই সুবিধা নেওয়ার কারণে এটার জুয়ার সঙ্গে সম্পৃক্ততা রয়েছে।

যদি এটা আমানত হিসেবে থাকত, তারা এটা ব্যবহার করতে পারত না, তাহলে মূলত এখানে জুয়া আসত না। জুয়া এসেছে কারণ, হয়তো তারা এই টাকা কোনো সুদি কারবারে এক মাস, দুই মাস বা তিন মাস ব্যবহার করল। এটা একটা মেয়াদে ড্র করা হয় এবং সেখান থেকে তারা উপকৃত হয়। যদি আমানত হিসেবে থাকত, তারা ব্যবহার না করত এবং এটা শর্তের মধ্যে উল্লেখ থাকত, তাহলে এটা জুয়া হতো না।

উত্তর প্রদানে - শাইখ ড. মুহাম্মাদ সাইফুল্লাহ
সূত্র: প্রাইজবন্ড কেনা কি জায়েজ?
 
Solution

Pavel

Well-known member

LV
3
 
Awards
10
Credit
55
প্রাইজবন্ডের এই বিষয়টি জুয়া ছাড়া আর কিছুই নয়। এটি হারাম, জায়েজ নেই।

অনেকে প্রাইজবন্ডের বিষয়ে কিছু কথা বলেন যে আমি তো প্রাইজবন্ড কিনলাম, এই টাকাটা আমার কাছে থেকে গেল, হয়তো কয়েকজন লটারি করে পুরস্কার পেল। এমন তো নয় যে আমার টাকা অন্য কেউ নিয়ে গেছে।

প্রাইজবন্ডের টাকা একটা নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত তাদের কাছে থাকে এবং এই টাকা তারা ব্যবহার করে থাকে একটা নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত। এই সুবিধা নেওয়ার কারণে এটার জুয়ার সঙ্গে সম্পৃক্ততা রয়েছে।

যদি এটা আমানত হিসেবে থাকত, তারা এটা ব্যবহার করতে পারত না, তাহলে মূলত এখানে জুয়া আসত না। জুয়া এসেছে কারণ, হয়তো তারা এই টাকা কোনো সুদি কারবারে এক মাস, দুই মাস বা তিন মাস ব্যবহার করল। এটা একটা মেয়াদে ড্র করা হয় এবং সেখান থেকে তারা উপকৃত হয়। যদি আমানত হিসেবে থাকত, তারা ব্যবহার না করত এবং এটা শর্তের মধ্যে উল্লেখ থাকত, তাহলে এটা জুয়া হতো না।

উত্তর প্রদানে - শাইখ ড. মুহাম্মাদ সাইফুল্লাহ
সূত্র: প্রাইজবন্ড কেনা কি জায়েজ?
Jazakallah khair 🥰
 

MD Nasim Ahmed

Member

LV
3
 
Awards
11
Credit
865
প্রাইজবন্ডের এই বিষয়টি জুয়া ছাড়া আর কিছুই নয়। এটি হারাম, জায়েজ নেই।

অনেকে প্রাইজবন্ডের বিষয়ে কিছু কথা বলেন যে আমি তো প্রাইজবন্ড কিনলাম, এই টাকাটা আমার কাছে থেকে গেল, হয়তো কয়েকজন লটারি করে পুরস্কার পেল। এমন তো নয় যে আমার টাকা অন্য কেউ নিয়ে গেছে।

প্রাইজবন্ডের টাকা একটা নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত তাদের কাছে থাকে এবং এই টাকা তারা ব্যবহার করে থাকে একটা নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত। এই সুবিধা নেওয়ার কারণে এটার জুয়ার সঙ্গে সম্পৃক্ততা রয়েছে।

যদি এটা আমানত হিসেবে থাকত, তারা এটা ব্যবহার করতে পারত না, তাহলে মূলত এখানে জুয়া আসত না। জুয়া এসেছে কারণ, হয়তো তারা এই টাকা কোনো সুদি কারবারে এক মাস, দুই মাস বা তিন মাস ব্যবহার করল। এটা একটা মেয়াদে ড্র করা হয় এবং সেখান থেকে তারা উপকৃত হয়। যদি আমানত হিসেবে থাকত, তারা ব্যবহার না করত এবং এটা শর্তের মধ্যে উল্লেখ থাকত, তাহলে এটা জুয়া হতো না।

উত্তর প্রদানে - শাইখ ড. মুহাম্মাদ সাইফুল্লাহ
সূত্র: প্রাইজবন্ড কেনা কি জায়েজ?
জাজাকাল্লাহ খাইরান
 

Create an account or login to comment

You must be a member in order to leave a comment

Create account

Create an account on our community. It's easy!

Log in

Already have an account? Log in here.

Total Threads
13,355Threads
Total Messages
17,220Comments
Total Members
3,683Members
Latest Messages
imranexLatest member
Top