সালাফী আকিদা ও মানহাজে - Salafi Forum

Salafi Forum হচ্ছে সালাফী ও সালাফদের আকিদা, মানহাজ শিক্ষায় নিবেদিত একটি সমৃদ্ধ অনলাইন কমিউনিটি ফোরাম। জ্ঞানগর্ভ আলোচনায় নিযুক্ত হউন, সালাফী আলেমদের দিকনির্দেশনা অনুসন্ধান করুন। আপনার ইলম প্রসারিত করুন, আপনার ঈমানকে শক্তিশালী করুন এবং সালাফিদের সাথে দ্বীনি সম্পর্ক গড়ে তুলুন। বিশুদ্ধ আকিদা ও মানহাজের জ্ঞান অর্জন করতে, ও সালাফীদের দৃষ্টিভঙ্গি শেয়ার করতে এবং ঐক্য ও ভ্রাতৃত্বের চেতনাকে আলিঙ্গন করতে আজই আমাদের সাথে যোগ দিন।
Yiakub Abul Kalam

মাল দান করার চেয়ে ইলম প্রচার উত্তম

Yiakub Abul Kalam

Altruistic

Uploader
Exposer
Salafi User
Threads
151
Comments
158
Reactions
1,033
Credit
1,629

মাল দান করার চেয়ে ইলম প্রচার উত্তম​


শায়খ বিন উসায়মীন রহিমাহুল্লাহ বলেনঃ

ইলম সম্পদ থেকেও অনেক অনেক দামী। যদিও কেউ মোটা অংকের সম্পদ দান করে, তথাপিও ইলমের প্রচার ও প্রসার অধিক উত্তম।

আসো, একটা উদাহরণ দেই।
আবূ হুরায়রা রাযিয়াল্লাহু আনহুর যুগে বেশ কয়েকজন খলীফা ও রাজা ছিল, যারা (অধিকাংশ) দুনিয়া রাজত্ব করেছেন।

আহমাদ বিন হাম্বল রহিমাহুল্লাহর যুগে এমন অনেক ধনী ছিল, যাদের সম্পদ ছিল অঢেল। সেখান থেকে তারা দান করেছে, বিভিন্ন খাতে ওয়াকফ করেছে।

তাদের পরে শায়খুল ইসলাম ইবনু তায়মিয়্যাহ, ইবনুল কয়্যিম রহিমাহুমুল্লাহ-দের যুগেও অনেক ধনী ছিল, যারা দান করেছে, ওয়াকফ করেছে।

সেই সম্পদগুলো আজ কৈ?
ব্যয়িত মাল আছে কি?
ওয়াকফকৃত সম্পত্তি কোথায়?
সব হারিয়ে গেছে, কোথাও কোনো চিহ্ন নেই।

কিন্তু আবূ হুরায়রা-র হাদীস দিন রাত সবসময় পঠিত হয়, আর তিনি প্রতিদান পান।

অনুরূপ, ইমামগণের যে ইলম ও ফিকহ উম্মাহর মাঝে ছড়িয়ে আছে, সেগুলোরও সওয়াব তারা পাচ্ছেন।

এরকমই শায়খুল ইসলাম ইবনু তায়মিয়্যাহ, ইবনুল কয়্যিম সহ অন্যান্য আলেমদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য, যারা চলে গেছেন; কিন্তু তাদের স্মরণ আজ চির জাগরুক, সবাই জানে ও চেনে।

তারা সবাই কবরে গেছেন, কিন্তু সওয়াব পেতেই আছেন।

আর এটাই প্রমাণ করে, ইলম সম্পদের চেয়েও অনেক অনেক মূল্যবান এবং মানুষের অধিক উপকারী।

--[শরহু রিয়াযিস সলিহীন, ৫/৪৩৬]
 

Hasan Ali

Salafi

Salafi User
Threads
4
Comments
36
Reactions
42
Credit
44
মহান রব আমাদের সকলকের উপর রহম করুন
 

Reduan khan

Active member

Threads
0
Comments
38
Reactions
4
Credit
15

মাল দান করার চেয়ে ইলম প্রচার উত্তম​


শায়খ বিন উসায়মীন রহিমাহুল্লাহ বলেনঃ

ইলম সম্পদ থেকেও অনেক অনেক দামী। যদিও কেউ মোটা অংকের সম্পদ দান করে, তথাপিও ইলমের প্রচার ও প্রসার অধিক উত্তম।

আসো, একটা উদাহরণ দেই।
আবূ হুরায়রা রাযিয়াল্লাহু আনহুর যুগে বেশ কয়েকজন খলীফা ও রাজা ছিল, যারা (অধিকাংশ) দুনিয়া রাজত্ব করেছেন।

আহমাদ বিন হাম্বল রহিমাহুল্লাহর যুগে এমন অনেক ধনী ছিল, যাদের সম্পদ ছিল অঢেল। সেখান থেকে তারা দান করেছে, বিভিন্ন খাতে ওয়াকফ করেছে।

তাদের পরে শায়খুল ইসলাম ইবনু তায়মিয়্যাহ, ইবনুল কয়্যিম রহিমাহুমুল্লাহ-দের যুগেও অনেক ধনী ছিল, যারা দান করেছে, ওয়াকফ করেছে।

সেই সম্পদগুলো আজ কৈ?
ব্যয়িত মাল আছে কি?
ওয়াকফকৃত সম্পত্তি কোথায়?
সব হারিয়ে গেছে, কোথাও কোনো চিহ্ন নেই।

কিন্তু আবূ হুরায়রা-র হাদীস দিন রাত সবসময় পঠিত হয়, আর তিনি প্রতিদান পান।

অনুরূপ, ইমামগণের যে ইলম ও ফিকহ উম্মাহর মাঝে ছড়িয়ে আছে, সেগুলোরও সওয়াব তারা পাচ্ছেন।

এরকমই শায়খুল ইসলাম ইবনু তায়মিয়্যাহ, ইবনুল কয়্যিম সহ অন্যান্য আলেমদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য, যারা চলে গেছেন; কিন্তু তাদের স্মরণ আজ চির জাগরুক, সবাই জানে ও চেনে।

তারা সবাই কবরে গেছেন, কিন্তু সওয়াব পেতেই আছেন।

আর এটাই প্রমাণ করে, ইলম সম্পদের চেয়েও অনেক অনেক মূল্যবান এবং মানুষের অধিক উপকারী।

--[শরহু রিয়াযিস সলিহীন, ৫/৪৩৬]
আল্লাহ সবাইকে সঠিক বুঝ দান কর
 
Top