সালাফী আকিদা ও মানহাজে - Salafi Forum

Salafi Forum হচ্ছে সালাফী ও সালাফদের আকিদা, মানহাজ শিক্ষায় নিবেদিত একটি সমৃদ্ধ অনলাইন কমিউনিটি ফোরাম। জ্ঞানগর্ভ আলোচনায় নিযুক্ত হউন, সালাফী আলেমদের দিকনির্দেশনা অনুসন্ধান করুন। আপনার ইলম প্রসারিত করুন, আপনার ঈমানকে শক্তিশালী করুন এবং সালাফিদের সাথে দ্বীনি সম্পর্ক গড়ে তুলুন। বিশুদ্ধ আকিদা ও মানহাজের জ্ঞান অর্জন করতে, ও সালাফীদের দৃষ্টিভঙ্গি শেয়ার করতে এবং ঐক্য ও ভ্রাতৃত্বের চেতনাকে আলিঙ্গন করতে আজই আমাদের সাথে যোগ দিন।
Golam Rabby

প্রশ্নোত্তর এক মুষ্টির অতিরিক্ত দাড়ি কাটার বিষয়ে বিভ্রান্তি ও তার জবাব

Golam Rabby

Knowledge Sharer

ilm Seeker
HistoryLover
Q&A Master
Salafi User
Credit
3,477
ইবনু উমার রাযিয়াল্লাহু তা'আলা আনহু থেকে এক মুষ্টির অতিরিক্ত দাড়ি কাটার ব্যাপারে কিছু বর্ণনা রয়েছে, যা বিশেষ সময়ের জন্য তাঁর ব্যক্তিগত আমল ছিল। যেমন বর্ণিত হয়েছে, ইবনে ওমর রাযিয়াল্লাহু তা'আলা আনহুমা হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, 'তোমরা মুশরিকদের বিরুদ্ধাচারণ কর। তোমরা গোঁফ ছেঁটে ফেল এবং দাড়ি ছেড়ে দাও। আর ইবনু ওমর রাযিয়াল্লাহু তা'আলা আনহুমা যখন হজ্জ বা ওমরায় যেতেন তখন তিনি দাড়ি থেকে এক মুষ্টির অতিরিক্ত অংশ কেটে ফেলতেন।' (সহীহুল বুখারী, হাদীস নং- ৫৮৯২; সহীহ মুসলিম, হাদীস নং- ২৫৯) মারওয়ান বিন সালেম আল-মুকাফফা বলেন, আমি ইবনু ওমর রাযিয়াল্লাহু তা'আলা আনহুমা কে দেখেছি, তিনি দাড়ি ধরতেন অতঃপর এক মুষ্টির অতিরিক্ত অংশ কেটে ফেলতেন। (আবূ দাঊদ, হাদীস নং- ২৩৫৭, সনদ হাসান)

জবাব : ইবনু ওমর রাযিয়াল্লাহু তা'আলা আনহুমা থেকে দাড়ি কাটার ব্যাপারে যে বর্ণনাগুলো এসেছে সেগুলোর সনদ সহীহ বা হাসান হলেও গ্রহণযোগ্য নয়। কারণ এটি ছিল আব্দুল্লাহ বিন ওমর রাযিয়াল্লাহু তা'আলা আনহুমা এর হজ্জকালীন ইজতিহাদ। আর ইজতিহাদে সাহাবায়ে কেরামও ভুল করতে পারে। যদিও তিনি ইজতিহাদ করার কারণে সওয়াব পেয়ে যাবেন। তিনি আল্লাহর বাণী, 'আল্লাহ চাইলে অবশ্যই তোমরা মসজিদুল হারামে প্রবেশ করবে নিরাপদে নির্ভয়ে মস্তক মুণ্ডিত অবস্থায় অথবা কেশ কর্তিত অবস্থায়। (সূরা ফাতাহ ৪৮:২৭) এ আয়াতের মাথা মুণ্ডন ও চুল কর্তন উভয় বিধানের উপর ইবনু ওমর রাযিয়াল্লাহু তা'আলা আনহুমা আমল করতে চেয়েছিলেন। প্রথমে তিনি মাথা মুণ্ডন করেন এবং দ্বিতীয় শব্দের উপর আমল করার জন্য তিনি ইজতিহাদের ভিত্তিতে দাড়ি থেকে অল্প ছাঁটতেন। কিন্তু এটি ইসলামের বিধান ছিল না।

ইসমাঈল আনসারী রহিমাহুল্লাহ তা'আলা ইবনু ওমর রাযিয়াল্লাহু তা'আলা আনহুমা এর আমল সম্পর্কিত হাদীস বর্ণনার পরে বলেন, তার বর্ণিত হাদীসে দলীল রয়েছে, তার মতামতে নয়। নিঃসন্দেহে রাসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর বাণী ও কর্মের আনুগত্য করা অধিক উপযুক্ত ও অন্য যে কারো আনুগত্য থেকে উত্তম। সে যেই হোক না কেন।

(আদ-দুররুল মুনতাকা ফী তাবঈনে ইফাইল লেহইয়া, পৃ. ১৩)


[রেফারেন্স : মুসলিম জীবনে জানা অজানা কিন্তু... বই থেকে; লেখক : D. Abdullahil Kafi Lutfor Rahman Al-Madani; প্রকাশনায় : ওয়াহীদিয়া ইসলামিয়া লাইব্রেরী, রাজশাহী।]
 
Top