সালাফী আকিদা ও মানহাজে - Salafi Forum

Salafi Forum হচ্ছে সালাফী ও সালাফদের আকিদা, মানহাজ শিক্ষায় নিবেদিত একটি সমৃদ্ধ অনলাইন কমিউনিটি ফোরাম। জ্ঞানগর্ভ আলোচনায় নিযুক্ত হউন, সালাফী আলেমদের দিকনির্দেশনা অনুসন্ধান করুন। আপনার ইলম প্রসারিত করুন, আপনার ঈমানকে শক্তিশালী করুন এবং সালাফিদের সাথে দ্বীনি সম্পর্ক গড়ে তুলুন। বিশুদ্ধ আকিদা ও মানহাজের জ্ঞান অর্জন করতে, ও সালাফীদের দৃষ্টিভঙ্গি শেয়ার করতে এবং ঐক্য ও ভ্রাতৃত্বের চেতনাকে আলিঙ্গন করতে আজই আমাদের সাথে যোগ দিন।
Abdullah Rakib

বিবাহ ও দাম্পত্য একজন হাবশীর ছেলেও হাশেমী খলিফার মেয়েকে বিয়ে করতে পারবে

Abdullah Rakib

Susceptible

Exposer
Salafi User
Threads
25
Comments
26
Reactions
163
Credit
126
যারা বলে আরব নারীদের বিয়ে করা যাবে না, তারা ভুল। বরং পুরুষ যেকোন মহিলাকে বিয়ে করতে পারবে, সে আরব হোক বা অনারব — আল্লাহ্ যাদেরকে বিয়ে করা হারাম করেছেন তাদের ব্যতীত। তেমনি নারীরাও পারবে।

এবং আত্মীয়দের বিয়ে করা উত্তম।

আল-ইমাম, মুজতাহিদ, হাফিয ইবনু হাযম বলেন:

“এবং ইছলামের সব মানুষ একে অপরের ভাই, এবং বংশ অজানা একজন হাবশীর ছেলের জন্য, হাশিমী খলিফার মেয়েকে বিয়ে করা হারাম নয়। এবং একজন ফাসিক মুছলিম, যে ব্যভিচার না করলেও সীমালঙ্ঘনের চরমে পৌঁছেছে, একজন নেককার মহিলা মুছলিমের সমান। এবং এইভাবে একজন ভাল মুছলিম পুরুষ একজন সীমালঙ্ঘনকারী মুছলিম মহিলার জন্য সমান, যতক্ষণ পর্যন্ত না সে ব্যভিচারিণী হয়৷ এবং আমরা যেটা পছন্দ করি, আত্মীয়দের মধ্যে থেকে একে অপরকে বিয়ে করা।
ﻭﺃﻫﻞ اﻹﺳﻼﻡ ﻛﻠﻬﻢ ﺇﺧﻮﺓ ﻻ ﻳﺤﺮﻡ ﻋﻠﻰ اﺑﻦ ﻣﻦ ﺯﻧﺠﻴﺔ ﻟﻐﻴﺔ ﻧﻜﺎﺡ اﺑﻨﺔ اﻟﺨﻠﻴﻔﺔ اﻟﻬﺎﺷﻤﻲ. ﻭاﻟﻔﺎﺳﻖ - اﻟﺬﻱ ﺑﻠﻎ اﻟﻐﺎﻳﺔ ﻣﻦ اﻟﻔﺴﻖ - اﻟﻤﺴﻠﻢ - ﻣﺎ ﻟﻢ ﻳﻜﻦ ﺯاﻧﻴﺎ - ﻛﻔﺆ ﻟﻠﻤﺴﻠﻤﺔ اﻟﻔﺎﺿﻠﺔ. ﻭﻛﺬﻟﻚ اﻟﻔﺎﺿﻞ اﻟﻤﺴﻠﻢ ﻛﻔﺆ ﻟﻠﻤﺴﻠﻤﺔ اﻟﻔﺎﺳﻘﺔ ﻣﺎ ﻟﻢ ﺗﻜﻦ ﺯاﻧﻴﺔ؟ ﻭاﻟﺬﻱ ﻧﺨﺘﺎﺭﻩ ﻓﻨﻜﺎﺡ اﻷﻗﺎﺭﺏ ﺑﻌﻀﻬﻢ ﻟﺒﻌﺾ.

আল্লাহ্ তা’য়ালা বলেন: {ﺇﻧﻤﺎ اﻟﻤﺆﻣﻨﻮﻥ ﺇﺧﻮﺓ} — নিশ্চয়ই মুমিনরা পরস্পর ভাই ভাই। [হুজুরাত: ১০]

আল্লাহ্ বলেন: {ﻓﺎﻧﻜﺤﻮا ﻣﺎ ﻃﺎﺏ ﻟﻜﻢ ﻣﻦ اﻟﻨﺴﺎء}
“বিয়ে করো নারীদের মধ্যে যাকে তোমার ভাল লাগে।” [নিছা: ৩]

এবং আল্লাহ্ আযযা ওয়া জাল্লা আমাদের জন্য নারীদের থেকে যাদের বিয়ে করা হারাম, উল্লেখ করেছেন। অতঃপর আল্লাহ্ তা’য়ালা বলেন: “ﻭﺃﺣﻞ ﻟﻜﻢ ﻣﺎ ﻭﺭاء ﺫﻟﻜﻢ্” এরা ছাড়া সকল নারীদের তোমাদের জন্য হালাল করা হয়েছে। [নিছা: ২৪]

রাছূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া-‘ছাল্লাম যয়নাব, উম্মুল মুমিনীনকে বিয়ে করেছিলেন, মিকদাদ বিয়ে করেছিলেন দুবায়া বিনতে যুবায়র বিন আব্দিল মুত্তালিবকে।
ﻭﻗﺪ ﺃﻧﻜﺢ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ - ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ - ﺯﻳﻨﺐ ﺃﻡ اﻟﻤﺆﻣﻨﻴﻦ ﺯﻳﺪا ﻣﻮﻻﻩ.
ﻭﺃﻧﻜﺢ اﻟﻤﻘﺪاﺩ ﺿﺒﺎﻋﺔ ﺑﻨﺖ اﻟﺰﺑﻴﺮ ﺑﻦ ﻋﺒﺪ اﻟﻤﻄﻠﺐ.

এবং আমাদের পছন্দ হচ্ছে, আত্মীয়দের বিয়ে করা, কারণ রাছূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া-‘ছাল্লাম তাঁর কন্যাদের বানী হাশীম এবং বানূ আব্দ শামছ ছাড়া কোথাও বিয়ে দেননি। আল্লাহ্ তায়ালা বলেন: অবশ্যই তোমাদের জন্য রাছূলুল্লাহ’র মধ্যে রয়েছে উত্তম আদর্শ” [আহযাব: ২১]
ﻭﺇﻧﻤﺎ ﺗﺨﻴﺮﻧﺎ ﻧﻜﺎﺡ اﻷﻗﺎﺭﺏ، ﻷﻧﻪ ﻓﻌﻞ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ - ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ - ﻟﻢ ﻳﻨﻜﺢ ﺑﻨﺎﺗﻪ ﺇﻻ ﻣﻦ ﺑﻨﻲ ﻫﺎﺷﻢ ﻭﺑﻨﻲ ﻋﺒﺪ ﺷﻤﺲ.
ﻭﻗﺎﻝ ﺗﻌﺎﻟﻰ: {ﻟﻘﺪ ﻛﺎﻥ ﻟﻜﻢ ﻓﻲ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ ﺃﺳﻮﺓ ﺣﺴﻨﺔ}

ওয়াবিল্লাহী তা'য়ালা তওফীক। ফাসিক এবং মহিলা ফাসিকের ব্যাপারে আমাদের কথা, যারা আমাদের বিরোধিতা করে তারা আবশ্যক মনে করে, যে একজন ফাসিকের জন্য ফাসিক মহিলা ছাড়া অন্য কাউকে বিয়ে করা জায়েয নয়, এবং একজন ফাসিক মহিলার জন্য একজন ফাসিক ছাড়া অন্য কাউকে বিয়ে করা জায়েয নয়। এবং এরকম কথা কেউ বলেনি।
ﻭﺑﺎﻟﻠﻪ ﺗﻌﺎﻟﻰ اﻟﺘﻮﻓﻴﻖ.
ﻭﺃﻣﺎ ﻗﻮﻟﻨﺎ ﻓﻲ اﻟﻔﺎﺳﻖ، ﻭاﻟﻔﺎﺳﻘﺔ، ﻓﻴﻠﺰﻡ ﻣﻦ ﺧﺎﻟﻔﻨﺎ ﺃﻥ ﻻ ﻳﺠﻴﺰ ﻟﻠﻔﺎﺳﻖ ﺃﻥ ﻳﻨﻜﺢ ﺇﻻ ﻓﺎﺳﻘﺔ، ﻭﺃﻥ ﻻ ﻳﺠﻴﺰ ﻟﻠﻔﺎﺳﻘﺔ ﺃﻥ ﻳﻨﻜﺤﻬﺎ ﺇﻻ ﻓﺎﺳﻖ، ﻭﻫﺬا ﻻ ﻳﻘﻮﻟﻪ ﺃﺣﺪ.

আল্লাহ্ তায়ালা বলেন: {ﺇﻧﻤﺎ اﻟﻤﺆﻣﻨﻮﻥ ﺇﺧﻮﺓ} — নিশ্চয়ই মুমিনরা পরস্পর ভাই ভাই। [হুজুরাত: ১০]

এবং আল্লাহ্ তায়ালা বলেন: {ﻭاﻟﻤﺆﻣﻨﻮﻥ ﻭاﻟﻤﺆﻣﻨﺎﺕ ﺑﻌﻀﻬﻢ ﺃﻭﻟﻴﺎء ﺑﻌﺾ} — এবং মুমিন পুরুষ ও মুমিন নারী একে অপরের বন্ধু।” [তাওবা: ৭১]

ওয়াবিল্লাহী তায়ালা তাওফীক।

[আল-মুহাল্লা: ১৮৬৭ নং, ৯/১৫১-১৫২, শামেলা]
 
Top