সালাফী আকিদা ও মানহাজে - Salafi Forum

Salafi Forum হচ্ছে সালাফী ও সালাফদের আকিদা, মানহাজ শিক্ষায় নিবেদিত একটি সমৃদ্ধ অনলাইন কমিউনিটি ফোরাম। জ্ঞানগর্ভ আলোচনায় নিযুক্ত হউন, সালাফী আলেমদের দিকনির্দেশনা অনুসন্ধান করুন। আপনার ইলম প্রসারিত করুন, আপনার ঈমানকে শক্তিশালী করুন এবং সালাফিদের সাথে দ্বীনি সম্পর্ক গড়ে তুলুন। বিশুদ্ধ আকিদা ও মানহাজের জ্ঞান অর্জন করতে, ও সালাফীদের দৃষ্টিভঙ্গি শেয়ার করতে এবং ঐক্য ও ভ্রাতৃত্বের চেতনাকে আলিঙ্গন করতে আজই আমাদের সাথে যোগ দিন।
Abdullah Rakib

অমুসলিম ভূখন্ডগুলিতে রাস্তায় বিক্ষোভের ব্যাপারে বিধান

  • Thread starter
শায়খ আব্দুল্লাহ্ আল-‘বুখারির কাছে একটি প্রশ্ন—

একজন প্রশ্নকারী জিজ্ঞাসা করেছেন: “হে শাইখ, এই সময়ে ইউরোপ জুড়ে, মুসলিমরা বিক্ষোভ করার জন্য একত্রিত হয়। তারা বিশ্বাস করে যে এর দ্বারা তারা শামে তাদের ভাইদের সাহায্য করছে— অমুসলিম ভূখন্ডগুলিতে এই বিক্ষোভগুলি চালু করা কি জায়েয?

উত্তর: প্রথমত, তুমি এই প্রশ্নটি করার আগে, অমুসলিম দেশগুলিতে এটি জায়েয কিনা, তোমার জিজ্ঞাসা করা উচিত: ‘শারিয়াতে কি আদৌ বিক্ষোভের অনুমতি আছে?’

কারণ মুসলিম দেশেই হোক বা অমুসলিম দেশেই হোক, বিধানের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই— বিধান একই।

এবং আমরা বহুবার ব্যাখ্যা করেছি যে এই বিক্ষোভগুলি ইসলামের পথনির্দেশন থেকে নয়। আমি বলতে চাচ্ছি যে বিক্ষোভ, সিট-ইন, এবং প্রতিবাদ ইত্যাদির সাথে শারীয়তের কোন সম্পর্ক নেই।

আলিমগণ এ বিষয়ে আলোচনা করেছেন এবং এ বিষয়ে গ্রন্থ রচনা করেছেন। এবং আমাদের শায়খ, ‘আল্লামাহ, যিনি হক ও বাতিলের মধ্যে পার্থক্য করতে পারেন, একজন আন্তরিক নসীহতকারী, ‘রাবী [ইবনু হাদী আল-‘মাদখালী]— হাফিয্বাহুল্লাহ্— ইসলামী শারীয়তে বিক্ষোভের হুকুম ব্যাখ্যা করে লিখেছেন।
এবং অন্যান্য ইলমী ব্যক্তিরাও [এ বিষয়ে] কথা বলেছেন এবং লিখেছেন।

সুতরাং বিষয়টি পরিষ্কার এবং দ্ব্যর্থহীন— এবং তুমি একটি অমুসলিম দেশে বসবাস করো, [তার] অর্থ এই নয় যে তুমি এমন একটি কাজ করতে পারো যা শারীয়তে অনুমোদিত নয়। এবং যারা মনে করে যে প্রতিবাদ এবং বিক্ষোভ সাহায্য করার একটি মাধ্যম [একটি অজুহাত]— তাহলে কতজন বহু বছর ধরে এবং অসংখ্যবার প্রতিবাদ করতে বেরিয়েছে, বারবার, যারা সফল না হয়ে ব্যর্থ হয়ে ফিরে এসেছে। তারা কিছুই অর্জন করতে পারেনি— এবং যদি তারা কিছু অর্জন করেও, তার মানে এই নয় যে এই কাজটি শারীয়তে অনুমোদিত, কখনও।

তাই অংশগ্রহণ করবে না— এবং অন্যদের অংশগ্রহণের জন্য উৎসাহিত করা তোমার জন্য জায়েয নয়। নিশ্চয়ই অমুসলিম দেশে কাফিরদের ভিতরে এটি অনুমোদিত বলে বিশ্বাস করা তোমার জন্য জায়েয নয়। কারণ এই কাজের সাথে শারীয়তের কোন সম্পর্ক নেই।

এবং আমরা ইতিমধ্যেই তোমার কাছে উল্লেখ করেছি যে, তাদের মধ্যে কেউ কেউ আমাদের শাইখ মুহাম্মাদ আল-‘উছাইমীনের কাছে [প্রশ্ন] নিয়ে এসেছিলো—রাহিমাহুল্লাহ্— এই বলে, ‘শাসক যদি বিক্ষোভের অনুমতি দেয়?’ সুতরাং, তিনি উত্তর দিয়েছিলেন: ‘এটি এর আদি থেকেই অনুমোদিত নয়। এবং যদি তিনি তাদের অনুমতি দেন, তাহলে রাব্বের অবাধ্যতার মধ্যে সৃষ্টির আনুগত্য নেই। প্রকৃতপক্ষে, আনুগত্য শুধুমাত্র যা ভালো [তাতে]। বারাকাল্লাহু ফিক।”
বঙ্গানুবাদ: আব্দুল্লাহ মুহাম্মদ রাকিব খান।

মূল সোর্স
 
Top